Templates by BIGtheme NET
State-of-Qatar-

কাতার সংকট ও বিশ্ব রাজনীতি

-: এম. এইচ. খান মাকসুদ :- 

ঘটনা যাই হোক কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণায় বিশ্ব রাজনীতিতে নতুন হাওয়া বইছে। চাপা উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বজুড়ে। এরই মধ্যে মধ্যপ্রাচ্য এমনকি বিশ্ব অর্থনীতিতেও এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের ৬ দেশ গত ৫ জুন কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দেয়। প্রথমে সৌদি আরব, বাহরাইন এ ঘোষণা দেয়। পরে মিসর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, লিবিয়া ও ইয়েমেন এ ঘোষণা দেয়। ইয়েমেনে কথিত সন্ত্রাসবাদবিরোধী যুদ্ধের আরব জোট থেকেও বাদ দেওয়া হয় কাতারকে। সম্পর্ক ছিন্নকারী দেশগুলো ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করাসহ বেশকিছু পদক্ষেপও ঘোষণা করে। তবে কাতারের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ করা হয়েছে কাতার তা অস্বীকার করেছে- এমনটাই বলছে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা।বিশ্বের সচেতন নাগরিকের চোখ এখন কাতারে। কী হতে যাচ্ছে কাতারে। নানা, জল্পনা, আলোচনা, বিশ্লেষণ এখন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে, বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের চায়ের আড্ডায়।

এদিকে, এই কূটনৈতিক টানাপোড়েনের পেছনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে দুষছে ইরান। ট্রাম্পের সাম্প্রতিক রিয়াদ সফরের সময়েই মধ্যপ্রাচ্যে সংকট তৈরির এ ঘটনার পরিকল্পনা সাজানো হয় বলে অভিযোগ করেছে তেহরান। দুবাই ড্রিমস ইনসাইড দ্য কিংডম অব ব্লিং গ্রন্থের লেখক রেমন্ড ব্যারেট তার এক লেখায় বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নতুন বিন্যাসের মাঝে আটকা পড়ে কাতার বুঝতে পারছে, প্রতিষ্ঠিত গোঁড়ামির বিরুদ্ধে গেলে মূল্য দিতে হয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইটার বার্তায় বলেছেন, সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্য সফরের সময় তিনি ‘চরমপন্থী আদর্শে অর্থায়নের’ বিষয়টি আলোচনা করেছেন। উপসাগরীয় অঞ্চলের যে নেতাদের সঙ্গে তার সাক্ষাৎ হয়েছে তারা সবাই ‘কাতারের দিকে ইঙ্গিত’ করেছেন। দোষারোপ করতে গিয়ে ট্রাম্প এ কথা বলেছেন।সৌদি আরবসহ ছয়টি দেশ কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করায় যে সংকটের সূচনা হয়েছে তার পুরো কৃতিত্ব দাবি করে মঙ্গলবার টুইট করেছিলেন ট্রাম্প।

টুইট বার্তায় এ ঘটনাকে তার সফরের সুফল হিসেবে তুলে ধরেছেন। তিনি বলেছেন, সৌদি আরবসহ ৫০টি দেশের নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাতের সুফল ফলতে শুরু করেছে। সফরকালে এই নেতারা বলেছিলেন, তারা উগ্রবাদকে তহবিল যোগানোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবেন এবং সে সময়ে সবাই কাতারের প্রতি আঙ্গুলি নির্দেশ করেছিলেন। তবে এ টুইট বার্তার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তিনি আবার কাতার প্রসঙ্গ নিয়ে অবস্থান বদলান। কাতার সংকট নিরসনে ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতার প্রস্তুতির কথা ঘোষণা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আলে সানির সঙ্গে বুধবার ফোনালাপের সময় এ প্রস্তাব দেন তিনি।

এদিকে, সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার পর দেশটিতে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তুরস্ক। ৭ জুন এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবে অনুমোদন দেয় তুরস্কের পার্লামেন্ট। এ সিদ্ধান্ত অনুসারে কাতারে একটি তুর্কি সামরিক ঘাঁটিতে সেনা মোতায়েন করা হবে। যদিও এই প্রস্তাবটি প্রথম খসড়া করা হয়েছিল এ বছরের মে মাসে।  কিন্তু  কূটনৈতিক সম্পর্ক চ্ছিন্ন করার পরপরই তুরস্ক দেশটিতে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিল।

কাতারকে কেন্দ্র করে মধ্যপ্রাচ্যের নতুন এই সংকট দীর্ঘতর হলে কূটনৈতিক ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জে পড়তে হবে বিভিন্ন দেশকে। খাদ্যদ্রব্য আমদানি আর বিমান পরিবহন নিয়ে সংকট চলতে থাকলে এর সরাসরি প্রভাব পড়বে  অর্থনীতিতে। পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি মাথাপিছু আয়ের দেশ কাতার। রয়েছে তেল ও গ্যাসের বিশাল মজুত। তাই বলা যায়, দ্রুত এ সংকটের সমাধান না হলে বিশ্ব রাজনীতিতে নতুন করে  সংঘাত, সংশয় আরো বাড়বে।

অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির আরব অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ সেন্টারের পরিচালক আমিন সাকিল বলেন, আরব বিশ্বের এমন সিদ্ধান্তে কাতারের সঙ্গে ইরান ও তুরস্কের সম্পর্ক আরো গভীর হতে পারে। কাতারকে অন্যান্য দেশের বর্জনের কারণে যে ক্ষতি হবে, তা থেকে উদ্ধারের জন্য তারা এরই মধ্যে সহযোগিতার ঘোষণা দিয়েছে। এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে যে, কাতার ও ইরান বিশ্বের সবচেয়ে বড় গ্যাসক্ষেত্র নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। তুরস্ক, ইরান ও কাতার যদি গ্যাস নিয়ে ভিন্ন চিন্তা করে, তাহলে অনেকটাই চাপে পড়ে যাবে আরব বিশ্বের দেশগুলো।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন বলেছেন, কাতারের সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদকারী দেশগুলোর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কে কোনো প্রভাব ফেলবে না। কাতারে মার্কিন বিমানঘাঁটি এবং আইএসের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক যুদ্ধে এই টানাপোড়েন প্রভাব ফেলবে না বলে উল্লেখ করেন তিনি।

_ লেখক : সাংবাদিক ও কলামিষ্ট। (মতামত লেখকের নিজস্ব)।

বিএন/মতা-১৭(০৬)

Print Friendly, PDF & Email
Please share this content >>>Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterPin on PinterestDigg thisShare on LinkedIn

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful